1. ph.jayed@gmail.com : akothadesk42 :
  2. admin@amaderkatha24.com : kamader42 :
শনিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১০:২২ পূর্বাহ্ন

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ছুটির বিষয়ে সিদ্ধান্ত আসতে পারে আজ

আমাদের কথা ডেস্ক
  • আপডেট : শনিবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

নিউজ ডেস্ক: কোভিড-১৯’র কারণে প্রায় ১১ মাস বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান। সর্বশেষ বর্ধিত ছুটির মেয়াদ শেষ হচ্ছে আগামী বৃহস্পতিবার। এ অবস্থায় ছুটির বিষয়ে আজ (শনিবার) সিদ্ধান্ত নিতে পারে শিক্ষা মন্ত্রণালয় এবং প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জনসংযোগ কর্মকর্তা বাংলাদেশ জার্নালকে বলেন, ছুটি বাড়বে না স্কুল খুলবে এ বিষয়ে এখনো কোন সিদ্ধান্ত আমি জানি না। তবে সিদ্ধান্ত আজ আসতে পারে। যে কারণে এখনো অপেক্ষা করছি। সিদ্ধান্ত পাওয়া মাত্র গণমাধ্যমে জানিয়ে দেয়া হবে বলেও তিনি জানান।

এর আগে মহামারীর প্রকোপ কিছুটা কমে আসায় এবং চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষার্থীদের প্রস্তুতির কথা বিবেচনা করে গত ২৩ জানুয়ারি মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি) স্কুল-কলেজের অধ্যক্ষদের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো খোলার প্রস্তুতি নিতে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

এরপর প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরও বিদ্যালয় খোলার প্রস্তুতি নিতে সকল বিদ্যালয়ে আদেশ জারি করে। কিন্তু সর্বশেষ দুই মন্ত্রণালয় আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ছুটি বর্ধিত করে বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে।

স্কুল খোলার বিষয়ে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহাম্মদ মনসুরুল আলম বাংলাদেশ জার্নালকে জানান, সরকারি সিদ্ধান্তের উপর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নির্ভর করছে। তবে যখনই বিদ্যালয় খোলার ঘোষণা আসুক না কেন আমাদের সকল প্রস্তুতি নেয়া আছে।

তবে মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, এবারো স্কুল বন্ধ রেখে বিজ্ঞপ্তি আসবে। এরপর হইতো বিদ্যালয় খুলে স্বাভাবিক শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করা হবে।

এর আগে গত ২৪ জানুয়ারি শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি সংসদে বলেছিলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার পর প্রাথমিকভাবে দশম ও দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের নিয়মিত ক্লাস হবে। বাকিরা সপ্তাহে এক দিন করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে গিয়ে ক্লাস করবে। কিন্তু সরকারের সিদ্ধান্ত না পাওয়ায় এ বিষয়ে এখনো কোন কার্যক্রম শুরু করেনি।

কোভিড-১৯ মহামারীর মধ্যে গতবছর পঞ্চম ও অষ্টমের সমাপনী পরীক্ষা এবং প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের বার্ষিক পরীক্ষা নেয়া যায়নি। জেএসসি/জেডিসি এবং এসএসসি ও সমমানের ফলাফলের ভিত্তিতে এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল ঘোষণা হয়।

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে করোনাভাইরাসের প্রকোপ বাড়তে শুরু করলে গত ১৭ মার্চ থেকে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেয়া হয়। কওমি মাদ্রাসা বাদে অন্যসব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ১৪ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করা ছিলো।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই জাতীয় আরো খবর
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Maintained By Ka Kha IT