1. ph.jayed@gmail.com : akothadesk42 :
  2. admin@amaderkatha24.com : kamader42 :
রবিবার, ২৮ নভেম্বর ২০২১, ০৯:২০ অপরাহ্ন

ভয়ঙ্কর করোনাভাইরাস ছড়িয়েছে মার্কিন সেনারা!

আমাদের কথা ডেস্ক
  • আপডেট : শনিবার, ১৪ মার্চ, ২০২০

নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাস মহামারি অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে, এমন সাফল্যের দাবি নিয়ে চীন যখন স্বাভাবিক জীবনে ফেরার চেষ্টা করছে, ঠিক তখনই শুরু হয়েছে গুরুতর বিতর্ক। এ বিতর্কে যোগ দিয়ে চীনের এক কূটনীতিক মন্তব্য করেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর ক্রীড়াবিদদের মাধ্যমে চীনে ওই ভাইরাস ছড়িয়েছে।

নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ সর্বপ্রথম মহামারি আকার ধারণ করে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে। গত জানুয়ারিতে চীনের সেন্টার ফর ডিজিজ অ্যান্ড প্রিভেনশনের প্রধান গাও ফু বলেছিলেন, ‘এখন আমরা জানি, ভাইরাসের উৎস হচ্ছে (উহানের) সামুদ্রিক খাবারের বাজারে বিক্রি হওয়া বন্য প্রাণী।’

তবে ফেব্রুয়ারির শেষ দিকে চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞ ঝং নানশান সাংবাদিকদের বলেন, ‘মহামারিটা চীনে প্রথম দেখা দিয়েছে। কিন্তু এর মানে এই নয় যে চীনেই ওটার উৎপত্তি।’

চীনের দুই গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তির দুই ধরনের মন্তব্যের মাঝখানের সময়ে সংবাদমাধ্যমগুলো হরহামেশা বলতে থাকে, উহানই করোনাভাইরাসের উৎপত্তিস্থল। দুই মাস ধরে এটাই যেন ছিল প্রতিষ্ঠিত সত্য। যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও করোনাভাইরাসকে ‘উহান ভাইরাস’ অভিহিত করতে ছাড়েননি।

এছাড়া করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে পদক্ষেপ গ্রহণের কথা জানিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প গত বুধবার জাতির উদ্দেশে যে ভাষণ দিয়েছেন, সেটার শুরুতে তিনি উল্লেখ করেছেন যে মহামারিটা চীন থেকেই শুরু হয়েছে।

মহামারি ছড়ানোর ব্যাপারে যুক্তরাষ্ট্রের এসব মন্তব্যের কড়া প্রতিবাদ জানায় চীন। মার্কিন বক্তব্য চীনের জন্য সম্মানহানিকর এবং বিজ্ঞানের প্রতি অশ্রদ্ধা, এমন মন্তব্যও করে বেইজিং।

এর মধ্যে গত বৃহস্পতিবার চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ঝাও লিজিয়ান যুক্তরাষ্ট্রের সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশনের পরিচালক রবার্ট রেডফিল্ডের কংগ্রেসের এক কমিটিতে দেওয়া ভাষণ প্রকাশ করেন। টুইটারে ওই ভাষণ প্রকাশের পাশাপাশি তিনি লেখেন, ‘সিডিসি জায়গামতো ধরা পড়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রে সর্বপ্রথম সংক্রমণ শুরু হয়েছে কোথায়? কতজন আক্রান্ত হয়েছে? হাসপাতালগুলোর নাম কী? সম্ভবত যুক্তরাষ্ট্র সেনাবাহিনী উহানে ওই মহামারি ছড়িয়ে দিয়েছে। স্বচ্ছ হোন? আপনাদের তথ্য জনসমক্ষে প্রকাশ করুন? যুক্তরাষ্ট্র আমাদের কাছে জবাবদিহি করতে বাধ্য!’

গত বুধবার কংগ্রেস কমিটিতে দেয়া বক্তব্যে রেডফিল্ড জানান, যুক্তরাষ্ট্রে ইনফ্লুয়েঞ্জায় আক্রান্ত হয়ে মারা যাওয়া কয়েকজনের ক্ষেত্রে পরবর্তী সময়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার তথ্য নিশ্চিত হওয়া গেছে। তবে ওই সব ব্যক্তি কবে আক্রান্ত হয়েছে, কবে মারা গেছে, সেসব ব্যাপারে কিছু জানাননি রেডফিল্ড।

মার্কিন কর্মকর্তা রেডফিল্ডের এ বক্তব্য এবং চীনা কূটনীতিক লিজিয়ানের টুইট- এ দুটি পরিপ্রেক্ষিতকে গুরুত্ব দিয়ে সিএনএন জানিয়েছে, ‘মিলিটারি ওয়ার্ল্ড গেমস’ উপলক্ষে যুক্তরাষ্ট্র সেনাবাহিনীর শত শত খেলোয়াড় গত বছর অক্টোবরে উহানে গিয়েছিল। এর দুই মাসের মধ্যেই উহানে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ মহামারির পর্যায়ে চলে যায়।

মহামারি নিয়ে চীনা কূটনীতিক লিজিয়ানের বক্তব্য সরকারের অবস্থানের প্রতিনিধিত্ব করছে কি না, গতকাল শুক্রবার এমন প্রশ্নের জবাবে চীনের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের আরেক মুখপাত্র জেং শুয়াং সাংবাদিকদের বলেন, ‘ভাইরাসের উৎপত্তিস্থল নিয়ে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়, এমনকি যুক্তরাষ্ট্রে বিদ্যমান আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের বিভিন্ন দৃষ্টিভঙ্গি আছে। চীন শুরু থেকেই মনে করছে এটা একটা বৈজ্ঞানিক ইস্যু এবং বৈজ্ঞানিক ও পেশাদার পরামর্শই আমাদের শোনা উচিত।’ সূত্র: এএফপি, সিএনএন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই জাতীয় আরো খবর
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Maintained By Ka Kha IT