1. ph.jayed@gmail.com : akothadesk42 :
  2. admin@amaderkatha24.com : kamader42 :
রবিবার, ১৬ মে ২০২১, ০৩:৩৮ অপরাহ্ন

আওয়ামী রাজনীতির শেকড়ের কথা জানালেন এম এ কাশেম

আমাদের কথা ডেস্ক
  • আপডেট : শুক্রবার, ১১ সেপ্টেম্বর, ২০২০

সুরাইয়া নাজনীন

যুগ যুগ ধরে তিনি রাজনীতি করে যাচ্ছেন। আওয়ামীলীগের একজন শক্তিমান বটবৃক্ষ। ৩৪ বছর ধরে ফ্রান্স আওয়ামীলীগের সঙ্গে অতপ্রতভাবে রয়েছেন। তিনি আর কেউ নন, এম এ কাশেম। ফ্রান্স আওয়ামীলীগের সভাপতি। অনাকাঙ্খিত কারণে ভারপ্রাপ্ত হিসেবে সভাপতির দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তবে এবার ভারমুক্ত হলেন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনায়। কথা হলো ফ্রান্স আওয়ামীলীগের সভাপতি এম এ কাশেমের সঙ্গে। তার বক্তব্য উঠে এলো আওয়ামী রাজনীতির শেকড়ের কথা।

দায়িত্বের পাকাপক্ততা নিশ্চয়ই আপনার রাজনীতিকে আরও বেগবান করবে, ভারমুক্ত হয়ে কেমন অনুভব করছেন?

এম এ কাশেম বলেন, ‌’আসলে রাজনীতি আমার রক্তে, মস্তিষ্কে, চিন্তায়। তবে বর্তমান যে ঘটনাটি ঘটেছে তার সম্পূর্ণ কৃতিত্ব জননেত্রী শেখ হাসিনার। তাঁর নির্দেশানায়, সিদ্ধান্তে আদরের হাতটি বাড়িয়ে না দিলে হয়তো এতো দ্রুত এই পরিস্থিতি সৃষ্টি হতো না। অনাকাঙ্খিত কিছু ঘটনার কারণে আমরা বহুবছর ভারপ্রাপ্ত ছিলাম। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুদূরপ্রসারী চোখ তা ভেদ করতে পেরেছে বলে আমরা সবাই গর্বিত, কৃতজ্ঞ।’

 

প্রবাস জীবনেও ষড়যন্ত্রকারীরা সরকারের বিরুদ্ধে নানা ধরনের ষড়যন্ত্র করে, এটা কিভাবে মোকাবেলা করবেন?

তিনি বলেন, ‌’ আমরা বিরোধী দলে থাকার সময় কোনরকম ষড়যন্ত্র করিনি। এটাকে প্রতিবাদের অংশ হিসেবে নিয়েছিলাম সেসময়। বিরোধীরা নানা উপায়ে প্রতিবাদ করবে এটাই স্বাভাবিক। ওয়ান ইলেভেনে আমরা দিন ভর অনশন করেছি ফ্রান্স দূতাবাসের সামনে। ব্রাসেলসে ছুটে গিয়েছি নানা কর্মসূচী নিয়ে। আওয়ামী রাজনীতি ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছে। তাহলে ৭৫ এর কালো রাত আমাদের দেখতে হতো না। রাখাল রাজা বঙ্গবন্ধু তাঁর সোনালী দিন বিসর্জন দিয়ে জাতির অধিকারের পেছনে ছুটেছে। বর্তমান সমাজটাকে বাঁচাতে হলে ষড়যন্ত্রকারীদেরকেও চিনে রাখতে হবে।’

ফ্রান্স আওামীলীগের একটি পক্ষ বর্তমান কমিটির বিরুদ্ধে অবস্থান নিয়েছে বলে শোনা যাচ্ছে, বিষয়টির সত্যতা কতটুকু

ফ্রান্স আওয়ামীলীগের সভাপতি এম এ কাশেম বলেন, ‘পৃথিবীতে তো অনেক চরিত্রের মানুষ আছে। দল যখন বড় হয় সেখানেও নানান চরিত্রের মানুষের আগমন ঘটে। অনুপ্রবেশকারীদের ও অভাব হয় না। যারা সরকার পরিবর্তন হলে দল পরিবর্তন করে ফেলেন চোখের পলকে। এখানে আমি সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে কিছু বলতে চাই আর তা হলো দেশে বিদেশে হলুদ সাংবাদিকতা ভরে গেছে যারা বিন্দুকে বিশাল করে ফেলেন। এক পরিবারে থাকতে গেলে মনমানিল্য হওয়াটাই স্বাভাবিক। এটা আমি স্বাভাবিক বলেই মনে করি। মনক্ষুন্ন হয়েছেন অনেকে কিন্তু অচিরেই সেগুলোর সমাধান হয়ে যাবে।’

 

সুস্থ রাজনীতি সমাজের জন্য কতটুকু প্রভাব ফেলে?

এমএ কাশেম বলেন, ‘ প্রত্যেকটি পেশার আলাদা দায়বদ্ধতা রয়েছে। একজন ডাক্তার যদি মহামারিতে ঘরে বসে থাকেন ভয় পেয়ে তাহলে সমাজের জন্য তা কখনই মঙ্গল নয়। তেমনি নৈতিকভাবে রাজনীতি প্রত্যেক দেশ তথা সমাজের জন্য মঙ্গলকর। আওয়ামী রাজনীতি সেই নীতিতে বিশ্বাসী। জননেত্রী শেখ হাসিনা সবসময় চান সবাইকে ঐক্যবদ্ধ করে দেশের জন্য উন্নতির দুয়ার খুলতে। আমি নতুন করে কিছুর প্রমান দিতে চাই না। প্রযুক্তিগত দিকসহ সব সেক্টরেই আজ উন্নতির ভরা জোয়ার।’

নতুন ভাবনা কি?

তিনি বলেন, ‘মহামারিতে গোটা পৃথিবী আজ কোনঠাসা। সবকিছু স্থবির হলে বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে একটি প্লাটফর্ম তৈরি করার ইচ্ছা আছে। বঙ্গবন্ধুর প্রকৃত ইতিহাস কেউ জানে না। আবার অনেকে জেনেও বিকৃত করে। দল থেকে আমাদের প্রথম উদ্দেশ্য হবে বঙ্গবন্ধুকে বাঙালি তথা ফরাসী জাতিকে চেনানো।’

 

প্রবাসীদের উদ্দেশ্য কিছু বলুন

তিনি বলেন, ‘শুধু ফ্রান্স প্রবাসী নয়, গোটা বিশ্বের প্রবাসী ভাই ও বোনদের প্রতি আমার অশেষ কৃতজ্ঞতা ও শুভেচ্ছা। প্রবাস জীবন কত কষ্টের তা আমি খুব ভালো করেই জানি। শুরু থেকেই পায়ে পায়ে জীবন যুদ্ধ। কত ঘাত প্রতিঘাত সহ্য করে পরিবারকে অর্থের যোগান দেয়া। একজন প্রবাসী একটি দেশের সম্পদ বলে আমি মনে করি।’

সবশেষে আপনার দলের পক্ষ থেকে কিছু বলুন

শেষ প্রশ্নে এম এ কাশেম বলেন, আবারও আমি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করছি জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য। তিনি তাঁর দেশের সকল মানুষের জন্য একটি আদর্শিক সেতু স্থাপন করেছেন। সেই আদর্শ নিয়ে যেন আমরা সকল কর্মী-নেতাকর্মী চলতে পারি। আওয়ামীলীগ সরকার একটি প্রবাসী বান্ধব সরকার। প্রবাসীদের উন্নয়নে তিনি সবসময় তৎপর আছেন। আমরা সকল বৈষম্য, লিঙ্গভেদাভেদ ভুলে গিয়ে একটি ঐক্যের রাজনীতি, ঐক্যের গনতন্ত্র প্রতিষ্ঠা করতে চাই। জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু, জয়তু শেখ হাসিনা।’

নিউজটি শেয়ার করুন

এই জাতীয় আরো খবর
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Maintained By Ka Kha IT