1. ph.jayed@gmail.com : akothadesk42 :
  2. admin@amaderkatha24.com : kamader42 :
শুক্রবার, ১১ জুন ২০২১, ১১:৩৯ অপরাহ্ন

সাক্ষাৎকারে যা বললেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট

আমাদের কথা ডেস্ক
  • আপডেট : সোমবার, ২ নভেম্বর, ২০২০

নিউজ ডেস্ক: ইসলামের নবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনকে কেন্দ্র করে ফ্রান্সের সঙ্গে মুসলিম দেশগুলোর তীব্র বিতর্ক চলছে। প্রেসিডেন্ট ম্যাখোঁ ‘মত প্রকাশের স্বাধীনতার’ প্রেক্ষাপটে এই ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের অধিকার আছে বলে যুক্তি দেয়ার পর তা মুসলিমদের ক্ষিপ্ত করে। তখন অনেকে ফরাসি পণ্য বর্জনের ডাক দেয়।

এর পর গত শুক্রবার ফ্রান্সের নিস শহরে এক ব্যক্তি ছুরি হাতে হামলা চালিয়ে তিন জনকে হত্যা করে। ওই ঘটনার পটভূমিতে আল জাজিরা টেলিভিশনে এক সাক্ষাৎকার দেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট এমানুয়েল ম্যাখোঁ। সাক্ষাৎকারে তিনি বলেন, মহানবী (সা.)-কে নিয়ে আঁকা বিতর্কিত ব্যঙ্গচিত্রের কারণে মুসলিমরা কেন এতটা ক্ষুব্ধ হয়েছিল সেটা তিনি বুঝতে পারেন। তবে এর কারণে সহিংসতার যুক্তি তিনি কোনদিনই মানতে পারবেন না।

আল জাজিরাকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রেসিডেন্ট ম্যাখোঁ বলেছেন, মুসলিম বিশ্বে তার কথা নিয়ে যে এরকম তীব্র প্রতিক্রিয়া হয়েছে, তার কারণ হচ্ছে লোকে ভুল করে ভেবেছেন তিনি মহানবী (সা.)- এর ব্যঙ্গচিত্রকে সমর্থন করেছেন। অথবা তারা মনে করেছেন ফরাসি সরকারই বুঝি এই ব্যঙ্গচিত্র তৈরি করেছে। যে ধরনের অনুভূতি প্রকাশ করা হচ্ছে আমি সেটা বুঝতে পারি এবং আমি তাদের শ্রদ্ধা করি। কিন্তু আমার ভূমিকাটিও আপনাদের বুঝতে হবে। এখানে দুটি বিষয়: শান্তি ফিরিয়ে আনা এবং কিন্তু সেই সঙ্গে অধিকার রক্ষা করা। যারা মহানবী (সা.)- এর ব্যঙ্গচিত্র একেঁছেন তাদের বাকস্বাধীনতার প্রতি ইঙ্গিত করে বলছিলেন তিনি।

তিনি বলেন, আজকের বিশ্বে কিছু মানুষ আছেন যারা ইসলামকে বিকৃত করেন এবং এই ধর্মের নামেই, যেটিকে তারা রক্ষা করছেন বলে দাবি করেন, তারা মানুষকে হত্যা করেন, জবাই করেন — ইসলামের নামে কিছু চরমপন্থী আন্দোলন এবং ব্যক্তি সহিংসতার চর্চা করেন।

ম্যাখোঁ বলেন, ব্যঙ্গচিত্র নিয়ে ক্ষোভের কারণে এখন ফরাসি পণ্য বর্জনের যে প্রস্তাব করা হয়েছে সেটা অর্থহীন এবং অগ্রহণযোগ্য।

সূত্র: বিবিসি বাংলা।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই জাতীয় আরো খবর
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Maintained By Ka Kha IT