1. ph.jayed@gmail.com : akothadesk42 :
  2. admin@amaderkatha24.com : kamader42 :
শনিবার, ১৩ জুলাই ২০২৪, ১২:৩৭ পূর্বাহ্ন

বিমান দুর্ঘটনার ১৮ দিন পর ৪ শিশুকে আমাজন থেকে জীবিত উদ্ধার

আমাদের কথা ডেস্ক
  • আপডেট : বৃহস্পতিবার, ১৮ মে, ২০২৩

নিউজ ডেস্ক: দক্ষিণ আমেরিকার দেশ কলম্বিয়ায় বিমান দুর্ঘটনার ১৮ দিন পর চার শিশুকে আমাজান জঙ্গল থেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার ওই চার শিশুর মধ্যে ১১ মাস বয়সি এক শিশুও রয়েছে। দক্ষিণ আমেরিকার এই দেশটির দক্ষিণাঞ্চলে ঘনজঙ্গলের ভেতর থেকে তাদের উদ্ধার করা হয়।

বৃহস্পতিবার কলম্বিয়ার প্রেসিডেন্ট গুস্তাভো পেট্রো এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। খবর রয়টার্সের।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বিমান দুর্ঘটনার ১৮ দিন পর কলম্বিয়ার একটি আদিবাসী সম্প্রদায়ের চার শিশুকে দেশটির দক্ষিণের জঙ্গল থেকে জীবিত পাওয়া গেছে বলে বুধবার জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট গুস্তাভো পেট্রো। গত ১ মে এই বিমানটি আমাজানের ঘনজঙ্গলে বিধ্বস্ত হয়েছিল।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, কলম্বিয়ার কাকুয়েটা প্রদেশের ঘনজঙ্গলে সামরিক বাহিনীর সদস্য, দমকলকর্মী এবং বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে গঠিত দল শিশুদের উদ্ধার করে। উদ্ধারকৃত শিশুদের মধ্যে ১১ মাস বয়সি এক শিশুও রয়েছে।

রয়টার্সে বলা হয়েছে, সেসনা ২০৬ মডেলের এই বিমানটি গত ১ মে কলম্বিয়ার আমাজোনাস প্রদেশের আরাকুয়ারা থেকে সাতজন আরোহী নিয়ে গুয়াভিয়ার প্রদেশের সানজোসে দেল গুয়াভিয়ার শহরে যাচ্ছিল। মাঝ আকাশে থাকাবস্থায় বিমানটির ইঞ্জিন ব্যর্থতার মুখে পড়ে এবং বিপদ বুঝতে পেরে বিমানটি থেকে মেডে সতর্কতা জারি করা হয়।

প্রেসিডেন্ট গুস্তাভো পেট্রো টুইটারে দেওয়া এক বার্তায় বলেন, ‘আমাদের সেনাবাহিনীর কঠোর অনুসন্ধানের পর আমরা গুয়াভিয়ারে বিমান দুর্ঘটনায় নিখোঁজ চার শিশুকে জীবিত পেয়েছি।’

রয়টার্স বলছে, দুর্ঘটনার ফলে পাইলটসহ তিনজন প্রাপ্তবয়স্ক নিহত হয়েছিলেন এবং তাদের মৃতদেহ বিমানের ভেতরে পাওয়া যায়। আর ১৩, ৯ এবং ৪ বছর বয়সি তিন শিশুর সঙ্গে ১১ মাস বয়সি এক শিশুও এ দুর্ঘটনায় বেঁচে যায়।

এই উদ্ধার প্রচেষ্টার সমন্বয় করেছে কলম্বিয়ার বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষ। তাদের প্রাথমিক তথ্যানুযায়ী, দুর্ঘটনার পর এই শিশুরা বিমান থেকে পালিয়ে গিয়েছিল এবং সাহায্যের খোঁজে জঙ্গলের ভেতরে ঘোরাঘুরি শুরু করে।

এ ছাড়া শিশুদের খোঁজ পাওয়ার আগে জঙ্গলে তাদের বেঁচে থাকার জন্য খেয়ে ফেলে দেওয়া ফলের অবশিষ্টাংশ এবং সেই সঙ্গে জঙ্গলের গাছপালা দিয়ে তৈরি করা উন্নত আশ্রয়ও খুঁজে পেয়েছিলেন উদ্ধারকারীরা।

কলম্বিয়ার সেনাবাহিনী, বিমানবাহিনীর বিমান ও হেলিকপ্টার এই উদ্ধার অভিযানে অংশ নেয়।

 

নিউজটি শেয়ার করুন

এই জাতীয় আরো খবর
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Maintained By Macrosys