1. ph.jayed@gmail.com : akothadesk42 :
  2. admin@amaderkatha24.com : kamader42 :
বৃহস্পতিবার, ১৭ জুন ২০২১, ০৫:৩৯ পূর্বাহ্ন

‘এইডস রুখতে ‘নো কনডম নো সেক্স’

আমাদের কথা ডেস্ক
  • আপডেট : মঙ্গলবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২০

ইয়ারা যোহারীন:

আজ বিশ্ব এইডস দিবস। মরনব্যধি এইডসকে রুখতে বিশ্বব্যাপী সচেতনতামূলক প্রচারের মাধ্যমে দিনটি পালিত হচ্ছে। এইডসকে রুখতে পুনরায় ভাবনার প্রসঙ্গে যদি আসি প্রথমেই এইডস রোগের কারন গুলো জানা জরুরী: কনডমহীন ঝুঁকিপূর্ন শারিরীক সম্পর্ক এইডস রোগীর সাথে হয়ে থাকলে, রোগীর রক্ত কোনক্রমে শরীরে প্রবেশ করলে, নেশার সময় একই সিরিন্জের ব্যবহার হলে।

আমাদের দেশে যথাযথ সেক্স এডুকেশনের অভাবে ঝুঁকির মাত্রাও বেশি, বর্তমানে করোনাকালে এইডসের ঝুঁকি আরও বেশি তাই আরও বেশি সতর্ক ও সচেতন হতে হবে সবাইকে।

এইডসকে প্রতিরোধ করতে চাইলে আবেগকে কন্ট্রল করে বাস্তববাদী হওয়া আবশ্যক। মাল্টিসেক্সপার্টনার, পলিগামীতার কারনে এইডস সহ অন্যান্য যৌন রোগের ঝুঁকি রয়েছে কনডম ব্যবহারে অনীহা রয়েছে। অনেকেরই বেশিরভাগ ক্ষেত্রে সঙ্গীর এক্সকিউজ থাকে সাথে কনডম নেই।

এতে সায় দিয়ে যে ভুলটা করা হয় তাতে কেবল যৌন রোগ নয় আনওয়ান্টেড প্রেগনেন্সির ও সম্ভাবনা থাকে, অনেকে ইমার্জেন্সী পিলগ্রহন করে এবং তা শরীরের সাথে মানানসই না হলে জরায়ুরোগে আক্রান্ত হয়ে থাকে।

মনে রাখা জরুরী ইমার্জেন্সী পিল প্রেগনেন্সি রোধ করে, যৌন রোগ নয়, তাই সঙ্গীর সাথে স্পষ্টভাবে আলাপ করে সম্পর্কে যেতে হবে, অতি আবেগে নয় নিজের স্বাস্হ্য সুরক্ষাকে আগে প্রাধান্য দিতে হবে যৌন রোগে কেউ কারো নয় অবস্থা সৃষ্টি হয়।

সঙ্গমের শুরু থেকে কনডম ব্যবহার করা আবশ্যক। প্রাপ্তবয়স্ক নারী পুরুষ যাদের যৌন জীবন চলমান তাদের কাছে কনডম থাকা অত্যাবশ্যক, এটা লজ্জা কিংবা খারাপ কিছু এই ট্যাবু থেকে বেড়িয়ে আসতে হবে কারন রিস্ক নিয়ে যে ক্ষনিক সম্পর্কে জড়াবেন তখন কিন্তু লজ্জা পাচ্ছেন না কিন্তু সুরক্ষা কবজ সাথে রাখতে লজ্জা পাচ্ছেন, এ লজ্জা আপনার নিজের জন্যই ক্ষতিকর , অনেকে ভেবে নেন কেবল যৌনকর্মীদের এইডস থাকে এবং পতিতালয়ে কনডমের ব্যবহার জরুরী বিষয়টা সম্পূর্ন একপেশে।

সঙ্গমে কনডমের ব্যবহার সর্বত্রই প্রযোজ্য, স্বামী স্ত্রী যদি বিশ্বস্ত ও রোগমুক্ত থাকে সে বিষয়টি আলাদা, বলা হচ্ছে গে, লেজবিয়ান মাল্টি সেক্সপার্টনার এসব ব্যক্তির পারসোনাল চয়েজ যদিও এসব ধর্মীয় ও নৈতিকভাবে সমর্থনযোগ্যতাহীন এসব ক্ষেত্রে সচেতন থাকা আবশ্যক।

ওরাল সেক্সেও এইডসের ঝুঁকি আছে, যখন কনডম থাকবে তখন যে কোনভাবে শারিরীক সম্পর্ককে বাদ দিতে হবে, নো কনডম নো সেক্স মতবাদে চলতে হবে, যেহেতু তরুন সমাজ এ রোগের সবচে ভুক্তভোগী তাই কনডমকে স্মার্ট চয়েজ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে হবে তরুনদেরকেই।

ব্রেনকে আপনি যা দিবেন তাই গ্রহন করবে তাই কনডমে অতৃপ্তি এধরনের মানসিকতা মাথায় আনা যাবে না, আগে ভাবতে হবে আপন সুরক্ষা।

কনডম কিনতে যেয়ে লজ্জার সম্মুখীন হোন অনেকে বিশেষ করে মেয়েরা সাহস করে উঠতেই পারেনা যেখানে তার ন্যাপকিনটিও কিনতে হয় আরেকজন পুরুষের
এসব সীমাবদ্ধতা কাটিয়ে উঠতে হবে, ঔষধের মতই একটা কাগজে লিখে ফার্মেসীতে সহজেই স্বল্প মূল্যে কনডম পেতে পারেন। কনডম কেনার সময় এর ডেট দেখা জরুরী, খেয়াল রাখা আবশ্যক কোন ছিদ্র যেন না থাকে, কনডমের সাথে তেল জাতীয় পিচ্ছিল পদার্থ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে এতে কনডম ছিঁড়ে যাবার সম্ভাবনা থাকে।

শুষ্ক এবং শীতল জায়গায় সংরক্ষন করতে হবে ওয়ালেটে বেশি দিন কনডম রেখে দিলে তা ঠিক না থাকার রিস্ক থাকতে হবে তাই পরিবর্তন করতে হবে।

মেইল এবং ফিমেইল উভয় কনডম ই রয়েছে , যে কোন একজনকে ব্যবহার করতে হবে দু জনেই ব্যবহার করলে এতেও রিস্ক আছে যেহেতু শারিরীক সম্পর্ক পারস্পারিক বোঝাপড়া এবং ভাল লাগার বিষয় সেহেতু বিষয়টি খোলাখুলি ভাবে আলাপ করেই সম্পর্কে যাওয়া জরুরী।

মহামারী করোনা কে রুখতে যেভাবে অবশ্যই মাস্ক কে আমরা গ্রহন করেছি ঠিক সেভাবে এইডস রুখতে শারিরীক সম্পর্কে কনডম ব্যবহার জরুরী নেশাগ্রস্থ হয়েও কনডম ব্যবহার বাদ দেওয়া যাবে না, একজনের সিরিন্জ অন্য ব্যাক্তির শরীরে প্রবেশ থেকে বিরত থাকুন এবং রক্ত পরীক্ষা করুন, কখনো কোন রিক্স অথবা সন্দেহ এর কেস থাকলে ব্লাড টেস্ট করুন এইচ আইভি পরীক্ষা করুন এবং চিকিৎসা নিন

এইডস রোগ ছোঁয়াছে নয় রোগ কে ঘৃনা করুন রোগীকে নয়
সর্বোচ্চ সতর্কতার সাথে স্মার্ট জীবন যাপন করার মাধ্যমে প্রতিরোধ করুন এইডসকে সবক্ষেত্রেই রোগমুক্তির চেয়ে প্রতিরোধ জরুরী। যথাযথ সেক্সএডুকেশন এবং তা মেনে চলার মাধ্যমে সুরক্ষিত থাকুক সবাই

ইয়ারা যোহারীন
প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি
ইনভিশন একশন রিওয়ার্ড এসেট (ইয়ারা )
নারীর ক্ষমতায়নে গ্রামভিত্তিক অনুপ্রেরনামূলক কার্যক্রম

নিউজটি শেয়ার করুন

এই জাতীয় আরো খবর
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত । এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Maintained By Ka Kha IT