আমাদেরকথা ২৪ডেস্ক:
লেবু এবং ইসবগুলের শরবত
উপকরণ : 
১ চা চামচ ইসবগুলের ভূসি, ২ টেবিল চামচ লেবুর রস, ১ গ্লাস পানি এবং চিনি পরিমাণমতো
প্রস্তুত প্রণালি : 
ইসবগুলের ভূসি আধঘণ্টা পানিতে ভিজিয়ে রেখে লেবু এবং চিনি মিশিয়ে ভালোভাবে নেড়ে পরিবেশন করুন।

চিড়ার শরবত
উপকরণ : 
১ মুঠ চিড়া, ২ টেবিল চামচ দই, ২ চা চামচ চিনি, ১ গ্নাস পানি।
প্রস্তুত প্রণালি : 
চিড়া কিছুক্ষণ পানিতে ভিজিয়ে রেখে দই এবং চিনি এক সঙ্গে মিলিয়ে ভালোভাবে বেস্নন্ড করে নিন।

আমের শরবত
উপকরণ : 
১ ফালি আম, ২ চা চামচ চিনি, ১ কাপ পানি, বরফ পরিমাণমতো।
প্রস্তুত প্রণালি : 
আম, চিনি, পানি এবং বরফ একসঙ্গে ভালোভাবে বেস্নন্ড করে নিন।
রুহ আফজার শরবত
উপকরণ : 
১ টেবিল চামচ রুহ আফজা এবং ১ গ্লাস পানি।
প্রস্তুত প্রণালি : 
১ গ্লাস পানিতে এক টেবিল চামচ রুহ আফজা মিশিয়ে পরিবেশন করুন।


পেঁয়াজু
উপকরণ : মসুর ডাল ১ কাপ, পেঁয়াজ কুচি আধাকাপ, বেসন ২ টেবিল চামচ, ময়দা ২ টেবিল চামচ, ছানা এক কাপের একচতুর্থাংশ, ডিম ১টি, কাঁচামরিচ কুচি ১ চা চামচ, দারচিনি গুঁড়া আধা চা চামচ, এলাচ গুঁড়া আধা চা চামচ, লেবুর বাকল গ্রেট ১ টেবিল চামচ, বেকিং পাউডার আধা চা চামচ, বোম্বাই মরিচ কুচি আধা চা চামচ, ধনেপাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, পুদিনা পাতা কুচি ১ টেবিল চামচ, লবণ পরিমাণমতো, তেল পরিমাণমতো।
প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে মসুরের ডাল ধুয়ে ভিজিয়ে আধাবাটা করে নিন। এবার সব উপকরণ একসঙ্গে মেখে ডালের সঙ্গে মিশিয়ে গোল গোল চ্যাপ্টা করে বানিয়ে ডুবো তেলে মচমচে করে ভেজে তুলুন। গরম গরম ইফতারের সময় পরিবেশন করুন।
বেগুনি
উপকরণ : লম্বা বেগুন ২টি, বেসন ১ কাপ, হলুদ ১ চা চামচ, মরিচ গুঁড়া ১ চা চামচ, বেকিং পাউডার চা চামচের চারভাগের এক ভাগ, লবণ পরিমাণমতো, তেল পরিমাণমতো।
প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে বেগুন লম্বা করে কেটে একটু হলুদ, মরিচ, লবণ দিয়ে মেখে রেখে দিন। এবার বেসন, হলুদ, মরিচ, লবণ ও পরিমাণমতো পানি দিয়ে ভালো করে বিট করে ফেটে নিন। কড়াইয়ে তেল গরম করে বেগুনের পিস বেসনের গোলায় ডুবিয়ে তেলে ছেড়ে মচমচে করে ভেজে তুলুন।


উপকরণ 
মুগ, বুট, মাষকলাই, মসুর ও চাল সব মিলিয়ে দেড় কেজি।গম (গুঁড়া) ১ কাপ। গরুর মাংস রান্না আধাকেজি। সুজি আধা কাপ। হলুদগুঁড়া ১ চা চামচ। মুরগির মাংস রান্না আধাকেজি
হলুদগুঁড়া ১ চা চামচ, আদা বাটা ১ চা চামচ, সয়াবিন তেল ১ কাপ, রসুন বাটা ১ চা চামচ,
তেঁতুলের মাড় আধা কাপ, ধনেগুঁড়া ১ চা চামচ, কাঁচা মরিচ ১০/১২টি, জিরাগুঁড়া ১ চা চামচ, বিট লবণ ২ চা চামচ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, আদা কুচি ২/৩ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ কুঁচি ১ কাপ, লেবু পরিমাণমতো, লবণ প্রয়োজনমতো, ধনেপাতা কুচি আধা কাপ, এলাচ ৪টি, জর্দার রং আধা চা চামচ, দারচিনি ৪টি ও এলাচ, দারচিনি, জায়ফল, জয়ত্রি একত্রে গুঁড়া ১ টেবিল চামচ।
প্রস্তুত প্রণালী 
গম তাওয়ায় ভেজে গুঁড়া করে এক ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখতে হবে। গরু ও মুরগির মাংস আমরা যেভাবে বাসায় রান্না করি, সেভাবে রান্না করে নিতে হবে। মাংসের তেল ও ঝোলটা আলাদা করে নিতে হবে। একটি পাত্রে আধা কাপ তেল দিয়ে একমুঠো পেঁয়াজ লাল করে ভেজে এর ভেতর আলাদা করা ঝোল ও জর্দার রং গুলিয়ে দিতে হবে। ফুটে উঠলে নামানোর আগে আধা চা-চামচ গরম মসলাগুঁড়া দিতে হবে। হালিমের ওপরের গ্লেসটা এই মসলা দিয়ে হবে। মুগডাল সামান্য ভেজে নিতে হবে এবং সব ধরনের ডাল ও চাল আধা ঘণ্টা ভিজিয়ে রাখতে হবে। ডাল ও চাল সেদ্ধ করে সব বাটা ও গুঁড়া মসলা দিতে হবে। গরম মসলা দিতে হবে। ডাল সেদ্ধ হলে ঘুঁটনি দিয়ে ঘুঁটে নিতে হবে ও ডালের চার গুণ পানি দিতে হবে। ফুটে উঠলে ভিজানো গম ও কাঁচা মরিচ দিয়ে নাড়তে হবে, না হলে নিচে লেগে যাবে। গম সেদ্ধ হয়ে ঘন হয়ে এলে সব মাংস দিতে হবে। ডাল, গম ও মাংস ভালোভাবে মিশে গেলে বিট লবণ ও তেঁতুলের মাড়, ধনেপাতা ও বাগাড় দেয়া ঝোল দিতে হবে। এবার সুজি ঠা-া পানি দিয়ে গুলিয়ে প্রয়োজনমতো দিতে হবে। সব শেষে থকথকে ভাব আনার জন্য পেঁয়াজের বাগাড় দিয়ে লবণ চেখে নামিয়ে লেবু, আদা কুচি, ধনেপাতা ও পেঁয়াজ কুচি দিয়ে পরিবেশন করুন।

উপকরণ 
টক দই আধা (কেজি), দুধ আধা লিটার (খুব ঠা-া) বা পানি, লেবুর রস ২ টেবিল চামচ, জিরা ভাজা গুঁড়া ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, বিটলবণ স্বাদমতো, বরফ কিউব পরিমাণমতো
প্রস্তুত প্রণালী : বেস্নন্ডারে দই, দুধ, লেবুর রস, জিরার গুঁড়া, লবণ ও বরফ কিউব দিয়ে বেস্নন্ড করে লম্বা গ্লাসে ঢেলে ঠা-া ঠা-া পরিবেশন।
লবণ ও বরফ প্রয়োজনমতো কমবেশি দেয়া যাবে এবং পছন্দ করলে পুদিনাপাতাও দেয়া যাবে।

You Might Also Like

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email address will not be published. Required fields are marked (*).