তাজা গাজর কুচি করে তৈরি করে ফেলতে পারেন চমৎকার সালাদ। গাজরের তরকারী অথবা হালুয়াও খেতে সুস্বাদু। প্রতিদিন নিয়ম করে এক গ্লাস গাজরের রস পান করতে পারেন। মোট কথা, সুস্থ থাকলে নিয়মিত গাজর খাওয়ার বিকল্প নেই। সুস্বাদু গাজর পুষ্টিগুণে ঠাসা। জেনে নিন নিয়মিত গাজর খাওয়া জরুরি কেন।
গাজর 
চোখ ভালো রাখতে  
দৃষ্টিশক্তি ভালো রাখে বহু ভিটামিনে ভরপুর গাজর। গাজরে থাকা ভিটামিন এ এবং উপকারী বিটা ক্যারোটিন চোখের ক্ষমতা বাড়িয়ে দেয়। সেই সঙ্গে ছানি পড়ার মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও কমে।
ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়
শরীর থেকে সব ধরনের টক্সিক উপাদান বের করে দিয়ে ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায় গাজর।
রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়
 শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে গাজরের জুড়ি নেই। গাজরে থাকা ভিটামিন বিভিন্ন সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমায়। বিশেষ করে, শীতকালে সর্দি-জ্বরে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকাংশেই কমিয়ে দেয় এই উপকারী সবজিটি।
হার্ট সুস্থ রাখতে
১০০ গ্রাম গাজর থাকে দিনের চাহিদার প্রায় ৩৩ শতাংশ ভিটামিন এ, ৯ শতাংশ ভিটামিন সি এবং ৫ শতাংশ বি৬। সেই সঙ্গে থাকে প্রচুর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। এই সবকটি উপাদান হার্টের কর্মক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে সাহায্য করে। খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে গাজর।
ত্বকের যত্নে
শীতকাল মানেই খসখসে ত্বক। এ সময় নিয়মিত গাজর খেলে ত্বক উজ্জ্বল ও প্রাণবন্ত থাকে। গাজরে থাকা একাধিক ভিটামিন এবং মিনারেল ত্বকের রুক্ষতা ও বলিরেখা দূর করতে কার্যকর।

তথ্য: বোল্ডস্কাই 

 

You Might Also Like

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email address will not be published. Required fields are marked (*).