ইরানে ৬০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে ইউরোপের দেশ ইতালি। এ লক্ষ্যে শিগগিরই দুই দেশের মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের কথা রয়েছে। ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের বরাত দিয়ে এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে মিডল ইস্ট মনিটর।

 
রোমে ইতালির অর্থ মন্ত্রণালয়ের সদর দফতরে এ সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হবে। ইতালির পক্ষে স্বাক্ষর করবেন দেশটির অর্থমন্ত্রী পিয়ের কার্লো পাদোয়ান। ইরানের পক্ষে স্বাক্ষর করবেন দেশটির অর্থ মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী মোহাম্মদ খাজেয়ি।


 
ইরানের অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্র বলছে, সমঝোতা স্মারকের আওতায় ইরানে বড় অঙ্কের বিনিয়োগ করবে ইতালীয় প্রতিষ্ঠানগুলো।

বিনিয়োগের জন্য ইরানের দুইটি ব্যাংক থেকে ৫০০ কোটি ইউরো ঋণ নেবে ইতালির রাষ্ট্রীয় আবাসন প্রতিষ্ঠান ইনভিতালিয়া।

ইরানের প্রথম ইউরোপীয় অংশীদার ইতালি। ২০১৭ সালে দুই দেশের মধ্যে বাণিজ্যের পরিমাণ ছিল ১৪৪ কোটি ডলার।

এমন সময় এ চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে যখন নতুন করে পাঁচ ইরানি কোম্পানির বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র। ইরানের ব্যালাস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে ৪ জানুয়ারি ওই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, ডোনাল্ড ট্রাম্প মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর যুক্তরাষ্ট্র-ইরান সম্পর্ক আরও বেশি তিক্ততায় রূপ নিয়েছে। সিরিয়া ও ইয়েমেন যুদ্ধ নিয়ে ইরানি পররাষ্ট্র নীতি এবং ২০১৫ সালে স্বাক্ষরিত ইরানের পারমাণবিক চুক্তি নিয়ে দুই দেশের মধ্যে অস্বস্তি বেড়েছে। ওই পরমাণু চুক্তির শর্ত ছিল, ইরান আগামী অন্তত ১০ বছরের জন্য নিজেদের পরমাণু সমৃদ্ধকরণের কাজ কমিয়ে আনবে। বিনিময়ে দেশটির ওপর থেকে ধীরে ধীরে আন্তর্জাতিক নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়া হবে। তবে বিভিন্ন সময়ে ইরানের বিরুদ্ধে ক্ষেপণাস্ত্র কর্মসূচি চালানোর অভিযোগ করে নিষেধাজ্ঞা জারি রেখেছে যুক্তরাষ্ট্র। ট্রাম্প প্রশাসনের এমন আচরণের কঠোর সমালোচনা করেছে ইরান। একইসঙ্গে বিশেষ করে ইউরোপীয় বিনিয়োগ আকৃষ্ট করতে চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে দেশটি।

You Might Also Like

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email address will not be published. Required fields are marked (*).