সিরিয়ার আফরিন ছিটমহলে সশস্ত্র কুর্দি বিদ্রোহীদের তুরস্কের অপারেশন অলিভ ব্রাঞ্চ নিয়ে ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁ’র সঙ্গে কথা বলেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান। শনিবার তুর্কি প্রেসিডেন্টের দফতরের একটি সূত্র দুই নেতার ফোনালাপের বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে তুরস্কভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আনাদোলু এজেন্সি।

রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান এবং ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁফোনালাপে সিরিয়া পরিস্থিতি, অপারেশন অলিভ ব্রাঞ্চ এবং তুরস্ক ও ফ্রান্সের মধ্যকার দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক নিয়ে কথা বলেন দুই নেতা। গত সপ্তাহে রাশিয়ার উপকূলীয় শহর সোচিতে অনুষ্ঠিত সিরিয়ান ন্যাশনাল ডায়ালগ কংগ্রেসের ফলাফল নিয়েও তাদের মধ্যে কথা হয়।


 
২০ জানুয়ারি আফরিনে তুরস্কের সামরিক অভিযান শুরুর পর থেকে গত শুক্রবার পর্যন্ত দেশটিতে ৮২টি রকেট নিক্ষেপ করে কুর্দি বিদ্রোহী গোষ্ঠী পিওয়াইডি/পিকেকে। ১২ দিনে কুর্দি বিদ্রোহীদের নিক্ষেপ করা রকেটের আঘাতে পাঁচ বেসামরিক তুর্কি নাগরিক নিহত হয়েছেন। বিভিন্ন ভবন ও মসজিদে নিক্ষেপ করা এসব রকেটের আঘাতে আহত হয়েছেন আরও শতাধিক মানুষ। তুর্কি ভূখণ্ডে এই রকেট হামলা সম্পর্কে ফরাসি প্রেসিডেন্টকে অবহিত করেন এরদোয়ান।

এরদোয়ান বলেন, অন্য দেশের ভূখণ্ড নিয়ে তুরস্কের কোনও পরিকল্পনা নেই। আফরিন থেকে পিওয়াইডি/পিকেকে, ওয়াইপিজ ও দায়েশ (আইএস)-এর মতো সন্ত্রাসী গোষ্ঠগুলোকে উৎখাত করাই এ অভিযানের লক্ষ্য।

ফোনালাপে সিরিয়া পরিস্থিতিসহ আঞ্চলিক নানা ইস্যুতে নিবিড় যোগাযোগ রাখার ব্যাপারে একমত হন দুই নেতা।

তুর্কি কর্মকর্তারা বলছেন, সিরীয় জনগণকে সন্ত্রাসীদের নিষ্ঠুরতা থেকে রক্ষা এবং সীমান্তে নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠায় এ অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। আন্তর্জাতিক আইন এবং জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের প্রস্তাবনা মেনেই অভিযান চালানো হচ্ছে। জাতিসংঘ সনদ অনুযায়ী তুরস্কের আত্মরক্ষার অধিকার রয়েছে। সিরিয়ার ভৌগোলিক অখণ্ডতার প্রতিও আঙ্কারা শ্রদ্ধাশীল।

You Might Also Like

Leave A Comment

Don’t worry ! Your email address will not be published. Required fields are marked (*).